1. alomgirmondol261@gmail.com : দৈনিক আজকের খোলা কাগজ :
বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১:১৩ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
নিয়ামতপুরে পহেলা বৈশাখ শুভ নববর্ষ উদযাপন নিয়ামতপুরে দর্শনার্থীর ভিড়ে মুখরিত ঘুঘুডাঙ্গা তালসড়ক নিয়ামতপুরে আলোর দিশারী সংগঠনের কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও শিক্ষার গুনগতমান উন্নয়ন শীর্ষক আলোচনা সভা নওগাঁর নিয়ামতপুরে পারিবারিক কলহের জেরে গৃহবধূর আত্মহত্যা বাংলাদেশ পুলিশ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করলেন আইজিপি নিয়ামতপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে সাংবাদিকদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ জাতীয় ঈদগাহে থাকবে পাঁচ স্তরের নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা: ডিএমপি কমিশনার ঈদে ঘরমুখো মানুষের নিরাপদ যাতায়াত নিশ্চিত করতে দায়িত্ব পালন করছে পুলিশ : আইজিপি নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার মধইল বাজারে জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা কেন্দুয়ায় তিন জুয়াড়ি গ্রেফতার

ঠাকুরগাঁওয়ে রূপালী ব্যাংকের কর্মকর্তা হয়েও সফল উদ্যোক্তা

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: সোমবার, ৩ জুলাই, ২০২৩
  • ১৭৬ বার পড়া হয়েছে

মোঃ মজিবর রহমান শেখঃ
ব্যাংক কর্মকর্তা হয়েও সফল উদ্যোক্তা মোঃ শাজাহান,
আম, লিচু, সুপারি, পেঁপে সহ বিভিন্ন ধরনের ফল ও সবজির বাগান করে সফল হয়েছেন রূপালী ব্যাংক ঠাকুরগাঁও শাখার কর্মকর্তা মো. শাজাহান। তাকে দেখে উদ্বুদ্ধ হচ্ছেন অনেকে। মোঃ শাজাহান, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ভেলাজান এলাকার বাসিন্দা।
সরেজমিন দেখা যায়, বিস্তীর্ণ মাঠে আম্রপালি, সূর্যাপুরি, হিমসাগর, বানানা ম্যাংগো সহ বিভিন্ন দেশি ও বিদেশি প্রজাতির আম, লিচু, সুপারি বাগান এবং সবজি হিসেবে পেঁপে, চিচিঙ্গা চাষ করেছেন শাজাহান। সবমিলিয়ে ১০-১২ বিঘা জমিতে এসব বাগান করেছেন তিনি। এবার প্রচণ্ড দাবদাহের কারণে ফলন তেমন ভালো না হলেও লক্ষাধিক টাকার লিচু বিক্রি করেছেন এ ব্যাংক কর্মকর্তা। এছাড়া আমবাগান থেকে এবার প্রায় ২-৩ লাখ টাকার আম বিক্রির আশা করছেন। আবহাওয়া ভালো থাকলে আগামী বছর এসব বাগান থেকে পাঁচ লক্ষাধিক টাকার ফল বিক্রির স্বপ্ন দেখছেন এ উদ্যোক্তা। ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ৭ নং- চিলারং ইউনিয়নের ভেলাজান মহাজন পাড়া গ্রামের মোঃ বেলাল উদ্দিনের ছেলে শাজাহান। স্কুলজীবন থেকেই তার গাছ ও প্রকৃতির প্রতি একটা অন্যরকম টান ও ভালোবাসা কাজ করতো। তখন থেকেই একটি দুটি করে বৃক্ষরোপণ করতেন তিনি। পরে চাকরি জীবনে এসে বৃহৎ পরিসরে বাগান করেন।
একই গ্রামের যুবক রেজু আহাম্মেদ রোহান বলেন, ‘শাজাহান ভাই বিভিন্ন ধরনের ফলের বাগান করে সফল ও লাভবান হচ্ছেন। তাকে দেখে আমাদের এই দিকে অনেক যুবক বাগান করতে উদ্বুদ্ধ হচ্ছেন।’
আনোয়ার হোসেন নামের আরেকজন বলেন, ‘শাজাহানকে দেখে আসছি তিনি ছোটবেলা থেকেই পরিশ্রমী এবং গাছ ও প্রকৃতিপ্রেমী। তিনি একজন ব্যাংক কর্মকর্তা। ব্যাংকে সারাদিন পরিশ্রম করার পরও ছুটির পরে আবার বাগানে পরিশ্রম করেন। তার এমন কর্মকাণ্ড এলাকায় বেশ সাড়া ফেলেছে। আশা করি তিনি ভবিষ্যতে আরও ভালো কিছু করতে পারবেন।’
বাগানে কাজ করা শ্রমিক আব্দুস সামাদ বলেন, ব্যাংক কর্মকর্তা শাজাহানের এসব বাগানে কাজ করে আয় করছে অন্তত ১৫-২০টি পরিবার। এতে তাদের সংসারও ভালো চলে। পুরো বছরেই বাগানে কাজ করেন তিনি। এ বিষয়ে ব্যাংক কর্মকর্তা মোঃ শাজাহান বলেন, ‘ভালোলাগা ও প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষার উদ্দেশ্যে এসব বাগান করা। যদিও আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার উদ্দেশ্যে এসব বাগান করিনি, তারপরও আর্থিকভাবে ভালোই লাভবান হচ্ছি।’
তিনি বলেন, ব্যাংকের কাজ শেষ করে এসেই বাগানে সময় দেই। ছুটির দিনে সম্পূর্ণ সময় বাগানেই চলে যায়। আগামী বছর এসব বাগান থেকে কমপক্ষে ৫ লাখ টাকার ফল বিক্রি করতে পারবো বলে আশা করছি।
ঠাকুরগাঁও জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক আলমগীর কবির বলেন, মোঃ শাজাহন সরকারি চাকরির পাশাপাশি একজন সফল কৃষি উদ্যোক্তা হিসেবে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। আমি তার সাফল্য কামনা করি

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট