1. alomgirmondol261@gmail.com : দৈনিক আজকের খোলা কাগজ :
শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০১:০৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীকের নির্দেশে রূপগঞ্জের ইউসুফগঞ্জ বাজারের পূর্বপাশে পানি নিষ্কাশনে পাকা ড্রেন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন নিয়ামতপুরে ষষ্ঠ ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহন কর্মকর্তাদের প্রশিণ কর্মশালা জাল সনদ কেনা ব্যক্তিদের তালিকা পেয়েছে ডিবি রূপগঞ্জে সাংবাদিকদের সঙ্গে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীর মতবিনিময় সভা নিত্যপণ্যের দাম বাড়ছেই লোহাগড়ায় সাবেক চেয়ারম্যানকে গুলি করে খুন খাদ্যমন্ত্রীর বড় ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা ধীরেশ চন্দ্র মজুমদারের মৃত্যু, খাদ্যমন্ত্রী শোক প্রকাশ মন্ত্রী-এমপিদের প্রভাব ঠেকাতে সংসদকে ইসির চিঠি অভিযোগ পেলেই ভোট গ্রহণ কর্মকর্তা বাদ: ইসি আলমগীর নওগাঁর নিয়ামতপুরে সংবাদ প্রকাশের পর খাল খনন কাজ পরিদর্শনে জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী গভীর নলকূাপ অপারেটরের স্বেচ্ছাচারিতা, অতিরিক্ত টাকা আদায় সত্তে¡ও নিয়ামতপুরে পানির অভাবে পুড়ছে ধান, পুড়ছে কৃষকের কপাল

ঠাকুরগাঁওয়ে প্লাস্টিকের বোতল দিয়ে বাড়ি তৈরি এলাকায় আনন্দের ঝড় উঠেছে

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৩৬ বার পড়া হয়েছে

মোঃ মজিবর রহমান শেখ,
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ঢোলার হাট ইউনিয়নের খড়িবাড়ি গ্রামে প্লাস্টিকের বোতল দিয়ে পরিবেশবান্ধব বাড়ি তৈরি করে এলাকায় বেশ সাড়া ফেলেছেন সওদাগর বর্মন (৬০)। ফেলে দেওয়া কোমল পানীয়ের প্লাস্টিকের বোতল দিয়ে দৃষ্টিনন্দন বাড়ি তৈরি করছেন এই গ্রাম্য ব্যবসায়ী। সওদাগর বর্মন ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ঢোলার হার্ট ইউনিয়নের খড়ি বাড়ি গ্রামের বাসিন্দা। পরিবেশ দূষণকারী প্লাস্টিকের বোতলে বালু ভর্তি করে সিমেন্ট দিয়ে পরিবেশবান্ধব এই বাড়ি তৈরি করছেন তিনি। তার বাড়িটি এখন ‘বোতল বাড়ি’ নামে পরিচিতি। আশপাশের অনেক মানুষ প্রায় প্রতিদিনই বাড়িটি দেখতে আসেন এখানে। সওদাগর বর্মন সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, তার মুদি খানার দোকান ছিল। সেখান থেকেই এক বছরে প্লাস্টিকের বোতলগুলো তিনি জড়ো করেছেন। তিনি দেখেন যে অনেক মানুষ প্লাস্টিকের বোতলগুলো ফেলে দিয়ে চলে যায়। তখন থেকেই তিনি বোতলগুলো জড়ো করে বাড়ি বানানোর কথা চিন্তা করেন। এর মধ্যে তিনি ইউটিউব দেখে কিভাবে বোতল দিয়ে বাড়ি তৈরি করা যায় সেটি শিখে ফেলেন। এরপর সওদাগর তার বাড়ির কাজ শুরু করেন। তিনি বলেন, আমি ১০ দিন আগে বাড়ির কাজ শুরু করেছি। বাড়ির কাজ শেষ করতে আরও কিছুদিন সময় লাগবে। আপাতত আমি একটি রুম তৈরি করছি পরবর্তী সময়ে বাড়ির আরেকটি রুম তৈরি করব। এটি তৈরি করার পর দেখব যে কেমন লাগছে। এখন পর্যন্ত আমার কাছে যে বোতলগুলো ছিল সেগুলো দিয়ে আমি এই পর্যন্ত উঠিয়েছি। তবে বোতল এখন শেষ। আমি শুনেছি যে ভাঙারি দোকান থেকে ৩০ থেকে ৩৫ টাকা দিয়ে ১ কেজি বোতল কেনা যায়। এক কেজিতে ৫০টা বোতল হয়। সেই দিক থেকে ইটের তুলনায় বোতলের যে খরচ সেটা অনেক কম পড়বে।
সওদাগরের স্ত্রী কুমিলা রানী বলেন, আমার স্বামী এই বাড়িতে করতেছে দেখে আমি অবাক হয়েছি। আমি অনেকবার বলেছি যে এই বাড়িটি তুমি কিভাবে করবে। তিনি বলেন যে, এই বাড়িটা আমি অনেক সুন্দর করে করতে পারব। এখন দেখতেছি বাড়িটি অনেক সুন্দর হচ্ছে। এতে আমাদের খরচ অনেক কম হচ্ছে এবং বাড়িটা বেশ পরিবেশবান্ধব হবে বলে মনে হচ্ছে।
সওদাগর ভ্রমণের বাড়ি দেখতে আসা নিমাই বলেন,তার বাড়িতে দেখতে আমি আকচা ইউনিয়ন থেকে এসেছি। তার বাড়িটি অনেক সুন্দর হয়েছে। যদিও কাজ শেষ হয়নি, তবে এখন থেকে মনে হচ্ছে যে এটার খরচ অনেক কম এবং সুবিধা অনেক বেশি। বোতল বাড়িটি পরিবেশবান্ধব একটি বাড়ি।
ঢোলার হাট ইউনিয়নের খড়িবাড়ি গ্রামের ইউপি সদস্য ওহাব মিয়া বলেন, সওদাগর বর্মন প্লাস্টিকের বোতল দিয়ে একটি বাড়ি তৈরি করতেছে বলে শুনতে পেয়েছি। বাড়িটি নাকি সে অনেক যত্ন করে তৈরি করছে। পরিবেশবান্ধব ও ব্যতিক্রমধর্মী হওয়ায় অনেক মানুষ সেখানে দেখতে যাচ্ছে। আমি এখন পর্যন্ত যায়নি তবে আজকে তার বাড়ি দেখতে যাব ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট